গ্রিড এবং ইন্টারকানেক্টড গ্রিড সিস্টেমের সহজ বর্ণনা | Power Grid Bangla

0
2798
গ্রিড

গ্রিড এবং ইন্টারকানেক্টড গ্রিড সিস্টেমের সহজ বর্ণনা | Power Grid Bangla

আজ আমরা গ্রিড সিস্টেম নিয়ে বিস্তারিত জানতে চেস্টা করবো । ইলেক্ট্রিক্যাল সিস্টেমের পাওয়ার উৎপাদনের পরের মাধ্যম হচ্ছে গ্রিড সিস্টেম । এখানে আমরা গ্রিড সিস্টেমের সাথে সম্পর্ক যুক্ত আরো কিছু বিষয়ে ধারনা নিবো সেগুলো নিচে দেয়া হয়েছে ।

যেসকল বিষয় আজ আমরা জানতে চলেছি সেগুলো হলোঃ

১। বৈদ্যুতিক গ্রিড সিস্টেম কাকে বলে?

২। জাতীয় গ্রিড সিস্টেম কাকে বলে?

৩। ইন্টারকানেক্টেড গ্রিড সিস্টেম কাকে বলে?

৪। ইন্টারকানেক্টেড গ্রিড সিস্টেম এর সুবিধা কি কি?

৫। বেজ লোড কাকে বলে?

৬। ভেরিয়েবল লোড কাকে বলে?

৭। ভেরিয়েবল লোডের প্রভাব ।

গ্রিড

বৈদ্যুতিক গ্রিড সিস্টেম কাকে বলে?

কোন বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রে মোট যে বৈদ্যুতিক শক্তি উৎপাদন হয় সেই বৈদ্যুতিক শক্তি উচ্চ ভোল্টেজের ট্রান্সমিশন লাইন দ্বারা দূরবর্তী বিভিন্ন উৎপাদন কেন্দ্রে হতে বিদ্যুৎ গ্রহণ করা, বহন করা  এবং বিতরণ লাইন দ্বারা উৎপাদিত বিদ্যুৎ গ্রাহকদের নিকট পৌঁছে দেবার মাধ্যমকে বৈদ্যুতিক গ্রিড সিস্টেম বলা হয় ।

জাতীয় গ্রিড সিস্টেম কাকে বলে?

উৎপাদন করা বিদ্যুৎ পুরো দেশে সরবরাহ করা হলে সরবরাহকৃত বিদ্যুতের মোট পরিমানকে বলা হয় জাতীয় গ্রিড । জাতীয় গ্রিড মেগাওয়াট (MW) একক দিয়ে প্রকাশ করা হয়ে থাকে । বর্তমানের প্রিক্ষিতে আমাদের দেশের সর্বোচ্চ জাতীয় গ্রিড সাত হাজার (৭০০০) মেগাওয়াট (MW) এর উপড়ে চলে গেছে এবং এটা বারছে খুব দ্রুত ।

ইন্টারকানেক্টেড গ্রিড সিস্টেম কাকে বলে?

অনেকগুলো উৎপাদন কেন্দ্রের অথবা জেনারেটিং স্টেশনেকে যখন সিরিজে সংযোগ করে মোট উৎপাদিত বৈদ্যুতিক শক্তি একত্রে সরবরাহ করা হয় তাকে ইন্টারকানেক্টেড গ্রিড সিস্টেম বলা হয় ।     

গ্রিড

ইন্টারকানেক্টেড গ্রিড সিস্টেম এর সুবিধা কি কি?

লোডের বিনিময় সুবিধাঃ  ইন্টারকানেক্টড সিস্টেমের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ সুবিধা হচ্ছে লোড বিনিময় করর যায় । যখন গ্রাহকদের অনেক বেশি চাহিদা হয় তখন ইন্টারকানেক্টড সিস্টেমের মাধ্যমে অন্য কোন বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র থেকে বৈদ্যুতিক শক্তি সরবরাহ করা যায় । কারন ইন্টারকানেক্টড মানেই হচ্ছে কয়েকটা উৎপাদন কেন্দ্র এর সমন্বয় ।

পুরোনো হয়ে যাওয়া পাওয়ারপ্ল্যান্ট ব্যবহার করাঃ এই সিস্টেমের আরেকটা সুবিধা হলো কম দক্ষ এবং পুরোনো হয়ে যাওয়া পাওয়ার প্লান্ট ব্যবহার করা যায় । কারন পুরোনো হয়ে যাওয়া পাওয়ার প্লান্টগুলোর দক্ষতা কমে যায় যেটা গ্রাহকদের চাহিদা মেটাবার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলে । কিন্তু যখন ইন্টারকানেক্টড সিস্টেমের মাধ্যমে ব্যবহার করা হয় তখন খুব সহজেই এগুলো ব্যবহার করা যায় এবং পাওয়ার সরবরাহ করা যায় ।

অর্থনৈতিক সুবিধাঃ ইন্টারকানেক্টড সিস্টেম যে কোন বিদ্যুৎ কেন্দ্রের দক্ষতা আরো বাড়িয়ে দেয় ।ইন্টারকানেক্টড সিস্টেমের স্টেশনগুলির মাঝে লোডের বিন্যাস একদম সুক্ষ ভাবে ভাগ করে দেয়া হয় যাতে স্টেশনগুলি উচ্চ লোডে কোন সমস্যা ছাড়া চলতে পারে । এই সময় কম দক্ষ এবং পুরোনো হয়ে যাওয়া পাওয়ার প্লান্টগুলো পিক লোডের ঘন্টায় কাজ করে থাকে ।

উৎপাদন কেন্দ্রের রিজার্ভ ক্ষমতা কম লাগেঃ আমরা জানি প্রত্যেকটা উৎপাদন কেন্দ্রের জরুরি অবস্থায় স্ট্যান্ডবাই ইউনিট থাকা লাগে । ইন্টারকানেক্টড সিস্টেম যেহেতু অনেক পাওয়ার স্টেশনের সমন্বয়ে সিরিজে সংযোগ করা থাকে তাই এখানে রিজার্ভ ক্ষমতা কম লাগে । আর এই কারনেই পুরো মাধ্যমের দক্ষতা বেড়ে যায় ।

বেজ লোড কাকে বলে?

আমরা জানি গ্রাহকদের একেক সময় ভিন্ন ভিন্ন মানের বৈদ্যুতিক শক্তির দরকার পরে, আর সেটা দিন এবং রাতের বেলায় বেশ পরিবর্তন দেখা দেয় । আমাদের গ্রাহকদের প্রয়োজন অনুযায়ী তাদের চাহিদার উপরে ভিত্তি করে একটা নির্দিষ্ট পরিমানের লোড সবসময় ধরে নিতে হয়, একেই বেজ লোড বলা হয় ।

গ্রিড

ভেরিয়েবল লোড কাকে বলে?

সাধারনত গ্রাহকদের একেক সময় একেক মানের বৈদ্যুতিক শক্তির দরকার হয় । প্রয়োজন ভেদে বৈদ্যুতিক শক্তির পরিমান ভিন্ন হয় । গ্রাহকদের অনিশ্চিত চাহিদার কারনে বিদ্যুৎ কেন্দ্রের লোড একেক সময় একেক রকম হয় আর এই লোডের স্থির না থাকাকে ভেরিয়েবল লোড বলা হয় ।

ভেরিয়েবল লোডের প্রভাব

যেহেতু ভেরিয়েবল লোডের বৈদ্যুতিক মান ফিক্সড থাকেনা তাই ভেরিয়েবল লোডের বেশ প্রভাব পরে। সব থেকে বেশে প্রভাব পরে হচ্ছে অতিরিক্ত সরঞ্জাম এবং উৎপাদন খরচ বেরে যাওয়া । আমরা এগুলো জানবো এখন,

১। ভেরিয়েবল লোডের কারনে অতিরিক্ত সরঞ্জাম এর প্রয়োজন হয় ।

২। পাওয়ার স্টেশনের সব ধরনের ইন্সট্রুমেন্ট বেরে যায় ।

৩। কাঁচামাল যেমন, কয়লা, এয়ার, ডিজেল, পানি অথবা যে কোন ফুয়েল এর পরিমান বেশি দরকার হয় ।

৪। অনেকসময় অতিরিক্ত প্রাইম মুভার ইনস্টল করার প্রয়োজন পরে ।

৫। বিদ্যুৎ উৎপাদন খরচ অনেক বেরে যায় ।

৬। ভেরিয়েবল লোডের কারনে বৈদ্যুতিক প্ল্যান্টের প্রতি কিলোওয়াট (KW) এর উৎপাদন খরচ বেরে যায় ।

গ্রিড

৭। উৎপাদন খরচ বেরে যাবার কারনে গ্রাহকদের থেকে নেয়া বিলের রেট বেরে যেতে পারে ।

৮। লোডের ভেরিয়েশন থাকার কারনে অনেক সময় যন্ত্রপাতির  উপড়ে প্রভাব পড়ে যায় যেটার কারনে যন্ত্রপাতি নষ্ট হবার সম্ভাবনা থাকে ।

গ্রিড এবং ইন্টারকানেক্টড গ্রিড সিস্টেম নিয়ে এটাই ছিলো আমাদের আজকের আয়োজন । আরো বেশি বেশি তথ্য পেতে EEEcareer এর সাথেয় থাকুন । আপনাদের যে কোন প্রশ্ন আমাদের কমেন্ট বক্সে জানাতে পারেন, আপনাদের সহযোগিতা আমাদের একান্ত কাম্য । ভালো থাকুন এবং সুস্থ থাকুন সবাই ।