গুরুত্বপূর্ণ ভাইভা টিপস | Interview Questions Bangla

2
1461
ভাইভা

গুরুত্বপূর্ণ ভাইভা টিপস | Interview Questions

চাকরির জন্য ভাইভা বোর্ড হচ্ছে একদম শেষের ধাপ । এই ধাপ ভালোভাবেঅতিক্রম করলেই আপনার চাকরী নিশ্চিত । ভাইভা বোর্ডে যারা থাকেন, তারা আপনাকে খুব ভালোভাবে যাচাই করে নিবে এই ধাপে । তাই চাকরি পেতে হলে আপনাকে হতে হবে একটু কৌশলী । নিজেকে ভাইভা বোর্ডের কাছে এমনভাবে উপস্থাপন করতে হবে যাতে করে আপনি তাদের যোগ্য চাকরি পার্থি এটা তারা বুঝতে পারে । আমরা এখানে কিছু গুরুত্বপূর্ণ ভাইভা টিপস তুলে ধরেছি ।

ভাইভা

এই কথাগুলো আপনাকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে

১। আপনার চাকরির জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিতে ভোলা জাবেনা ।

২। নির্দিষ্ট সময়ের মাঝে উপস্থিত হোন ।

৩। চাই ভালো একটা জীবন বৃত্তান্ত ।

৪। অবশ্যই সালাম / সম্মান প্রদর্শন করে প্রবেশ করুন ।

৫। ভাইভা বোর্ডে ধূমপান করে যাওয়া যাবেনা ।

৬। আপনার আঞ্চলিক ভাষা অবশ্যই পরিহার করতে হবে ।

৭। আপনার উত্তরগুলো সংক্ষেপে এবং হাশিমুখে দিন ।

৮। ভাইভা বোর্ডে মিথ্যের আশ্রয় নিবেন না ।

৯। বিনীতভাবে আপনাকে তাদের সামনে উপস্থাপন করুন ।

১০। যতটা পারা যায় প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে ধারনা রাখুন ।

চলুন উপরের পয়েন্টগুলো নিয়ে একটু বিস্তারিত জানা যাক

ইন্টারভিউ বোর্ডে গুরুত্বপূর্ণ ৫ প্রশ্ন জানতে এখানে ক্লিক করুন

আপনার চাকরির জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিতে ভোলা জাবেনা

যেখানে আপনি ভাইভা দিতে গেছেন সেখানে আপনার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিতে ভোলা জাবেনা । যদিও আপনার পরালিখার এবং জীবন বৃত্তান্ত তাদের কাছে আছেই তবুও আপনাকে এগুলো নিতে হবে কারন যেকোনো সময় তারা এগুলো চেয়ে বসতে পারেন । আপনার সাথে একটা কলম রাখুন আর সাথে একটা ভালো ব্যাগ রাখতে পারেন । আপনার সাথে থাকা ব্যাগ অবশ্যই কথা বলার সুরুতেই পাশে কথাও রাখুন, ব্যাগ মটেও সামনে থাকে টেবিলের উপরে রাখা যাবেনা ।

ভাইভা

নির্দিষ্ট সময়ের মাঝে উপস্থিত হোন

কোন ভাবেই ভাইভা বোর্ডে নির্দিষ্ট সময়ের পরে উপস্থিত হওয়া যাবেনা । আপনার হাতে সময় নিয়ে বের হোন যাতে আপনি নির্দিষ্ট সময়ের মাঝে উপস্থিত হয়ে যেতে পারেন । আপনার এই সময়ের মাঝে উপস্থিত হতে না পারাটা আপনাকে সুরুতেই পিছিয়ে দেবে চাকরিটা পাওয়ার জন্য । কারন প্রথিস্থানের কর্মকর্তা যারা আপনার ভাইভা নিবে তারা বুঝে যাবে আপনার সময়ের প্রতি গুরুত্ব কতোটা রয়েছে ।

চাই ভালো একটা জীবন বৃত্তান্ত

প্রথমেই ভালো একটা জীবন বৃত্তান্ত দরকার, কারন আপনি ভাইভা বোর্ডের সামনে যাওয়ার আগেই আপনার জীবন বৃত্তান্ত তাদের কাছে পৌঁছে যাবে । আপনার জিবনের যেসব ভালো অর্জন আছে সেগুলো আগে উপস্থাপন করুন । আপনার জীবন বৃত্তান্ত খুব বেশি কথায় লিখা যাবেনা, এমনভাবে লিখুন যাতে অল্প লখাতেই আপনার সম্পূর্ণ জীবন বৃত্তান্ত ফুটে উঠে ।

ইন্টারভিউ বোর্ডে গুরুত্বপূর্ণ ৫ প্রশ্ন জানতে এখানে ক্লিক করুন

অবশ্যই সালাম / সম্মান প্রদর্শন করে প্রবেশ করুন

অবশ্যই আপনাকে সম্মান প্রদর্শন করে ভেতরে প্রবেশ করতে হবে । আবার প্রবেশের পরে আপনি বসার জন্য তাদের কাছে অনুমতি চেয়ে নিবেন । যখন যার কাছে থেকে প্রশ্ন আশবে তার দিকে তাকিয়ে প্রশ্নের উত্তর দিন, একদম সোজা হয়ে বশে উত্তর দিবেন না ।

ভাইভা বোর্ডে ধূমপান করে যাওয়া যাবেনা

শুধু ধূমপান করার কারনে আপনার মুখে থেকে গন্ধ আশাটাই আপনাকে চাকরীর জন্য অযোগ্য প্রমান করতে যথেষ্ট । তাই অবশই ধূমপান পরিহার করুন । পান খাওয়ার অভ্যাস থাকলে সেটাও পরিহার করুন । মুখে চুইনগাম নিবেন না, এটা একটা অভদ্রতা ।

 আপনার আঞ্চলিক ভাষা অবশ্যই পরিহার করতে হবে

প্রশ্নের উত্তরের সময় আপনার বলার ভঙ্গিমা এবং উচ্চারণ খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয় । অবশ্যই আপনাকে  আঞ্চলিক ভাষা পরিহার করতে হবে । কথা বলার সময় আঞ্চলিক কোন টান না চলে আসে সেই দিকেও লক্ষ্য রাখতে হবে । তাই আগে থেকেই শুদ্ধ ভাষায় কথা বলার অভ্যাস করুন ।

ভাইভা

আপনার উত্তরগুলো সংক্ষেপে এবং হাশিমুখে দিন

আপনার বলা উত্তরগুলো সংক্ষেপে বলার চেষ্টা করতে হবে কারন সময় বেশি পাবেন না বিস্তারিত বলার । আবার জখন উত্তর দিবেন তখন হালকা হাশিমুখে উত্তর দিন যাতে তারা বুঝতে পারে আপনি একদম বিরক্তবোধ করছেন না । উত্তরের সময় অপ্রাসঙ্গিক কিছু বলবেন না । যেই প্রশ্নের উত্তর পারবেন না সেটার জন্য সরি বলুন এতে লজ্জার কিছু নেই, সব প্রশ্নের উত্তর পারাটা অনেকটাই অসম্ভব ।

ইন্টারভিউ বোর্ডে গুরুত্বপূর্ণ ৫ প্রশ্ন জানতে এখানে ক্লিক করুন 

 ভাইভা বোর্ডে মিথ্যের আশ্রয় নিবেন না

নিজেকে যোগ্য প্রমান করতে গিয়ে মিথ্যের আশ্রয় নিবেন না । ভুল তথ্য দিয়ে যদি আপনার চাকরীটা হয়েও যায় পরে সত্যি তথ্য বের হয়ে আসার পরে লজ্জা পাবার সাথে আপনার চাকরিটাও চলে যাবে । নিজের সাথে সথ থাকুন, মিথ্যে দিয়ে নিজেকে উপস্থাপন থেকে নিজেকে বিরত রাখুন ।

 বিনীতভাবে আপনাকে তাদের সামনে উপস্থাপন করুন

অনেকেই আছেন যারা খুব ভালো উত্তর জানেন কিন্তু উত্তরগুলো দেয়ার সময় একটু বেশি স্মার্ট সাজতে যান, তাদের ভাইভা বোর্ড পছন্দ করেন না । আপনার উত্তর গুলো সহজ সরল ভাবে দিন । বিনীত হওয়াটা একটা বড় সম্মানের কাজ । উত্তর দেয়ার সময় বেশি নড়াচড়া করবেন না, চেয়ারে হেলান দিবেন না আর যে প্রশ্ন করবে তার দিকে তাকিয়ে উত্তর দিন । শুধু ভাইভা বোর্ড এর চেয়ারম্যান এর দিকে তাকিয়ে থাকবেন না ।

ভাইভা

 যতটা পারা যায় প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে ধারনা রাখুন

অবশ্যই আপনাকে যে প্রতিষ্ঠানে চাকরীর জন্য গেছেন সেই প্রতিষ্ঠানের প্রতি কিছুটা ধারনা থাকা উচিৎ । তাহলে ভাইভা বোর্ড আপনার চাকরীর প্রতি আগ্রহ কতোটা সেটা বুঝতে পারবে । আপনার কাজ কি কি হতে পারে সেটাও জিজ্ঞেস করে নিতে পারেন ভাইভা বোর্ডের কাছে । তাই যদি সুযোগ থাকে তাহলে ভাইভা বোর্ডের সামনে যাওয়ার আগেই সেই প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে ধারনা রাখুন ।

ইন্টারভিউ বোর্ডে গুরুত্বপূর্ণ ৫ প্রশ্ন জানতে এখানে ক্লিক করুন 

উপরের বিষয়গুলো আপনাদের অবশ্যই কিছুটা এগিয়ে রাখবে চাকরি পাওয়ার জন্য । নিজের প্রতি বিশ্বাস রাখুন এবং উত্তেজিত না হয়ে ঠাণ্ডা মাথায় সকল প্রশ্নের উত্তর দেয়ার চেষ্টা করুন । সকলের প্রতি আমাদের শুভকামনা রইলো । লিখাগুলো ভালো লাগলে সবার মাঝে ছরিয়ে দিন, EEEcareer এর সাথেই থাকুন ।

2 COMMENTS

    • ধন্যবাদ আপনাকে , আমাদের সাথেই থাকুন । আপনাদের পরামর্শ আমাদের একান্ত কাম্য ।

LEAVE A REPLY