বৈদ্যুতিক সিস্টেমের নিরাপত্তা সতর্কতা | Safety check for engineers

0
2233
safety check

বৈদ্যুতিক সিস্টেমের নিরাপত্তা সতর্কতা | safety check for engineers

বন্ধুরা আমরা যারা বৈদ্যুতিক কাজের সাথে জরিত, তাদের অনেক সময়ই নিরাপত্তার অভাব থাকার কারনে অনেক বেশি বিপদে পরতে হয় । তাই আজ আমরা বৈদ্যুতিক সিস্টেমের নিরাপত্তা সতর্কতা ( safety check ) সম্পর্কে বেশ কিছু ধারণা শেয়ার করতে চলেছি । কারন আমাদের জীবনটা শুধু আমাদেরই নয় এটার সাথে জরিয়ে থাকে পুরো একটা পরিবার । আমরা যদি বৈদ্যুতিক সিস্টেমের নিরাপত্তা সম্পর্কে বালো ধারণা নিতে পারি তাহলে অনেকটাই ক্ষতির সম্ভাবনা কমে যাবে ।

আজ আমরা যে কয়টা বিষয় জানতে পারবো সেগুলো হলোঃ

১। বৈদ্যুতিক সিস্টেমের অবশ্যই করণীয় কিছু নিরাপত্তা ব্যবস্থা ।

২। বৈদ্যুতিক সিস্টেমের ওভার হেড লাইনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা সমূহ ।

৩। বৈদ্যুতিক শকের চিকিৎসা ব্যবস্থা ।

আমাদের কর্মক্ষেত্রে জড়িত সকলের সত্যিকারের নিরাপত্তার জন্য চাই সম্পূর্ণ আন্তরিক সহযোগিতা এবং প্রচেষ্টা । আমাদের পারস্পরিক সহযোগিতা পারে আমাদেরকে আরো বেশি নিরাপদ রাখতে । আর এই নিরাপত্তার জন্য আমাদের কিছু কথা খেয়াল রাখতে হবে, সেগুলো আমরা জানবো এখন ।

safety check

 বৈদ্যুতিক সিস্টেমের অবশ্যই করণীয় কিছু নিরাপত্তা ব্যবস্থা

১। যেহেতু আমাদের কাজ গুলো খুবই বিপদজনক তাই কাজের জায়গাগুলোতে বিপদজনক কোন নির্দেশনা অথবা বোর্ড এর বাবস্থা করতে হবে ।

২। কোন সার্কিটের কাজ করতে যাওয়ার আগে অবশ্যই আপনাকে নিশ্চিত হতে হবে যে পাওয়ার সাপ্লাই বন্ধ করা আছে কিনা । আপনাকে অবশ্যই পাওয়ার সাপ্লাই বন্ধ করে কাজ করতে হবে ।

৩। কাজের সাথে যারা জড়িত তারা ছাড়া আর কাওকে কাজের যায়গায় প্রবেশ করতে দেয়া উচিৎ নয় ।

৪। কাজের সময় অবশ্যয় সেফটি-সু ব্যবহার করতে হবে ।

৫। একটা কাজ করতে থাকলে কাজের সাথে জরিতদের ক্লান্তি চলে আসতে পারে আর ক্লান্তি নিয়ে মোটেও বৈদ্যুতিক লাইনের কোন কাজ করা যাবেনা ।

৬। কোন কাজে হাত দেবার আগে টেস্টার দিয়ে আবার পরীক্ষা করে নেয়া উচিৎ । এবং হাতে হ্যান্ড গ্লাবস পরতে হবে ।

safety check

৭। বজ্রপাতের সময় বৈদ্যুতিক সার্কিটে কাজ করা একদম উচিৎ না ।

৮। বৈদ্যুতিক সার্কিটে কাজ করার সরঞ্জাম গুলোকে আগে থেকেয় পরীক্ষা করে নিতে হবে, কাজ শুরু করার পরে নতুন কোন সরঞ্জাম যোগ করা ঠিক নয় ।

৯। কাজ শুরু করার আগে অবশ্যয় কাজ করার জায়গাটি ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিতে হবে ।

১০। আলগা পোশাক পরিধান করে কাজ শুরু করা উচিৎ নয়, এটা যেকোনো সময় বিপদের কারন হতে পারে ।

বৈদ্যুতিক সিস্টেমের ওভার হেড লাইনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা সমূহ 

মূলত ওভার হেড লাইন বলতে বুঝায় যে বৈদ্যুতিক লাইন আমাদের মাথার উপরে দিয়ে চলে গেছে সেগুলো । সাধারানত পোল এর মাধ্যমে ওভার হেড বৈদ্যুতিক লাইন টানা হয়ে থাকে । নিম্নে ওভার হেড লাইনের নিরাপত্তার জন্য কিছু পয়েন্ট উল্লেখ করা হলো ।

১। কভার ছাড়া  কন্ট্রাক্টর এর ওভার হেড বৈদ্যুতিক লাইনের টাওয়ারে অথবা কোন পোলে চড়া উচিৎ নয় ।

২। যখন বৃষ্টি ঝরে তখন ওভার হেড বৈদ্যুতিক লাইনের টাওয়ারে স্পর্শ করা যাবেনা ।

৩। ছাগল, গরু অথবা অন্য কোন পশু বৈদ্যুতিক লাইনের টাওয়ার এর সাথে বাঁধা যাবেনা ।

৪। কখনো অস্থায়ী কোন প্রয়োজন অথবা স্থায়ী কোন প্রয়োজনে ওভার হেড বৈদ্যুতিক লাইনের নিচে উঁচু কিছু স্থাপন করা উচিৎ নয়, এতে যেকোনো সময় দুর্ঘটনা ঘোটে যেতে পারে ।

৫। আমরা যদি কখনো লাইনেরে প্রধান মাথার অংশগুলিতে কোন স্পার্কিং দেখতে পাই, তাহলে অবশই খুব তারাতারি আমাদের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জানাতে হবে ।

৬। কখনো ঝড় অথবা অতিরিক্ত বৃষ্টিপাত হলে ওভার হেড বৈদ্যুতিক লাইনকে প্রধান সঞ্চালনের যে  লাইন সেটা থেকে যথেষ্ট নিরাপদ দূরত্ব রাখতে হবে । কারন যে কোন সময় বৈদ্যুতিক লাইন অথবা টাওয়ার পরে যেতে পারে এবং বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘোটতে পারে ।

safety check

৭। ওভার হেড বৈদ্যুতিক লাইনের সাথে মাটির মাঝের ক্লিয়ারেন্স আমাদের দেশের নিয়ম অনুযায়ী রাখতে হবে ।

৮। উঁচু কোন বাঁশ অথবা দীর্ঘ কোন ধাতব নিয়ে ওভার হেড বৈদ্যুতিক লাইনের নিচে দিয়ে যাওয়া উ

চিৎ নয় । খেয়াল না থাকলে দুর্ঘটনা ঘোটে যেতে একদমই সময় লাগবেনা ।

৯। ওভার হেড বৈদ্যুতিক লাইনের নিচে কোন চাষ না করা এ ভাল, যদি করা হয় তাহলে অবশ্যয় নির্দিষ্ট পরিমান সতর্কতা মেনে করতে হবে ।

১০। যেখানে বৈদ্যুতিক লাইনের নিচে দিয়ে রাস্তা রয়েছে সেখানে দিয়ে লাইনের নিচে আলাদা করে জালি বানিয়ে দেয়া উচিৎ যাতে লাইন কখনো ছিরে গেলেও সেটা রাস্তায় পরে না যায় ।

বৈদ্যুতিক শকের চিকিৎসা ব্যবস্থা

১। যদি কেও বৈদ্যুতিক শক পায়  তাহলে সাথে সাথে বৈদ্যুতিক লাইনের সরবরাহ বন্ধ করে দিতে হবে ।

২। যদি সরবরাহ বন্ধ করার কোন উপায় না থেকে তাহলে শক পাওয়া ব্যক্তিকে যেকোন ভাবে লাইন থেকে দূরে সরাতে হবে ।

৩। লাইন থেকে দূরে সরানর জন্য রশি অথবা এমন কিছু ব্যবহার করতে হবে যে গুলো শুকনো আছে সেগুলো ।

৪। শক পাওয়া ব্যক্তিকে শুঁকনো কোথাও শুইয়ে দিন এবং তার শরীর থেকে যতটা পারা যায় জামা কাপড় খুলে ফেলুন ।

safety check

৫। শক পাওয়া ব্যক্তির মুখের ভিতরে কিছু আছে কিনা খেয়াল করুন এবং থাকলে সেটা বের করে ফেলুন ।

৬। মুখের সাথে মুখ লাগইয়ে শক পাওয়া ব্যক্তিকে কৃত্রিম নিঃশ্বাস দিতে থাকুন ।

৭। যতো তারাতারি পারা যায় কাছের কোন হাসপাতালে নিয়ে জান এবং ডাক্তারের পরামর্শ নিন ।

আমাদের আজকের বৈদ্যুতিক সিস্টেমের নিরাপত্তা সতর্কতা (safety check) নিয়ে আলোচনা এই পর্যন্তয় ছিলো । আপনাদের নিরাপত্তা আমাদের সকলের একান্ত কাম্য । সবাই নিরাপদ এবং সুস্থ থাকুন এবং EEEcareer এর সাথেয় থাকুন ।

LEAVE A REPLY